গাজীপুর পূবাইলে ধর্ষণ মামলার আসামী ৫ দিন পর গ্রেফতার

অপরাধ

রবিউল আলম,বিশেষ প্রতিনিধি :
গাজীপুর মহানগরীর পূবাইল থানাধীন মাজুখান এলাকায় ধর্ষণ মামলার ৫ দিন পর এজাহারভুক্ত পলাতক আসামীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১। শুক্রবার (১৩ আগষ্ট) রাত সাড়ে ১১টায় রাজধানীর উত্তরা পূর্ব থানাধীন ৬নং সেক্টরের আজমপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামী হলেন নাজমুল হুদা সাহেদ (১৯)। তিনি গাজীপুর জেলার পূবাইল থানাধীন মাজুখান উত্তরপাড়া এলাকার আলামিন মোল্লার ছেলে।

মামলাসূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবৎ ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী (১৭) এবং বিবাদী নাজমুল হুদা সাহেদ (১৯) এর মধ্যে প্রেমের সর্ম্পক চলছিলো। ভুক্তভোগী গাজীপুরের পূবাইলের একটি কলেজের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী। গত ২৯ মে গাজীপুর মহানগরীর পূবাইলে কলেজছাত্রীকে বিয়ে করার প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করে দশম শ্রেণির এক ছাত্র। পরে ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী বিয়ের জন্য প্রস্তাব দিলে ছেলে সাহেদ বিয়ের প্রস্তাবে অসম্মতি জানায়।পরে বারবার ভুক্তভোগীর পিতামাতা এ বিষয়ে সমাধানের জন্য নাজমুলের পরিবারের কাছে গেলেও তারা পাত্তা না দেওয়ায়, রোববার (৭ আগস্ট) কলেজছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে পূবাইল থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।যার পূবাইল থানা মামলা নং ৪।

র‍্যাব-১ এর সহকারী পুলিশ সুপার নোমান আহমদ জানান, গত ৭ আগষ্ট পূবাইল থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করে ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর বাবা। সেই পরিপ্রেক্ষিতে র‍্যাব-১ এর একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে আসামী নাজমুল হুদা সাহেদ উত্তরাতে অবস্থান করছে। তারই ধারাবাহিকতায় অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি আরও জানান, আসামীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে বর্ণিত ধর্ষণের কথা স্বীকার করে। ভুক্তভোগীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে কুপ্রস্তাব দেয় কিন্তু তাতে ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী রাজি না হওয়ায় আসামী নাজমুল হুদা সাহেদ তার উপর ক্ষীপ্ত হয়ে কলেজছাত্রীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে একাধিকবার জোরপূর্বক বার ধর্ষণ করে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।