সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে এক মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে দুই জায়গা থেকে ভাতা তোলার অভিযোগ

অপরাধ

এম শাহীন আলম :
সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে এক মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে দুই জায়গা থেকে ভাতা তোলার অভিযোগ উঠেছে।
তিনি সাধারণ মুক্তিযোদ্ধা ভাতা ও একেই সংঙ্গে যোদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার ভাতা পান বলে জানা যায়।
বিশ্বস্হ সূত্রে আরো জানা যায়, ব্যাংক স্টেটমেন্ট অনুযায়ী সিরাজগঞ্জের কাজীপুর সোনালী ব্যাংক থেকে ও সিরাজগঞ্জ সদর অগ্রণী ব্যাংক থেকে তিনি মুক্তিযোদ্ধার সম্মানি ও যোদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার ভাতা তোলেন গাজী মোঃ ইউনুস উদ্দিন। এছাড়াও অন্য একটি ব্যাংকে নাম দেয়া আছে মিস্টার মোঃ ইউনুস উদ্দিন নামে।

সরেজমিনে অনুসন্ধানে জানাযায়,মোঃ ইউনুস উদ্দিন একই জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর দিয়ে দুই স্থান থেকে সরকারি ভাতা নিচ্ছেন তিনি। ব্যাংক স্টেটমেন্ট অনুযায়ী, মিঃ মোঃ ইউনুস উদ্দিন, সেখানেই দেওয়া আছে পিতা কছিমুদ্দিন সরকারের জায়গায় তার মায়ের নাম সুখিতন নেছা শুধু কি তাই মায়ের নামের জায়গায় লেখা আছে স্ত্রীর নাম মনোয়ারা। তার দেওয়া তথ্যে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তার গেজেট নম্বর উল্লেখ রয়েছে (৮৯৭) জাতীয় পরিচয়পত্রে ঠিকানা হিসেবে মোঃ ইউনুস উদ্দিন, পিতা, কছিমুদ্দিন, মাতা, সুখিতন নেছা, গ্রাম- গান্ধাইল, পোঃ- গান্ধাইল, থানা- কাজিপুর, জেলা- সিরাজগঞ্জ। ইউনুস উদ্দিন জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর, ১৫০২৫৭৭৬৪২৭ এবং লাল মুক্তিযোদ্ধাবার্তা নম্বর। ৩১২০৬০১৮২।

মুক্তিযোদ্ধার ভাতা জালিয়াতির বিষয়ে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহরাব হোসেন বলেন, আসলে একজন মুক্তিযুদ্ধা দুইটা যায়গা থেকে ভাতা পেতে পারেন না, এরকম অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো। ভাতা জালিয়াতির অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে এই প্রতিবেদক কে বীর মুক্তিযোদ্ধা ইউনুস উদ্দিন বলেন, দেখো বাবা সরকার আমাদের কে ভালোবেসে ভাতা দিচ্ছে, একই সঙ্গে যুদ্ধাহত মুক্তিযুদ্ধার ভাতাও দিচ্ছে তাই আমি নিচ্ছি বলে জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.